Pages Menu
TwitterRssFacebook
Categories Menu

Posted by on Oct 27, 2015 in ছোট্টমনি, হাটি হাটি পা |

শিশুর রক্তশূন্যতা বা অ্যানিমিয়া নিয়ে কিছু কথা

শিশুর রক্তশূন্যতা বা অ্যানিমিয়া নিয়ে কিছু কথা

শরীরে পর্যাপ্ত আয়রনের অভাবে শিশুর ডিহাইড্রেশন হতে পারে। আর এ থেকে সমস্যা দেখা দিতে পারে রক্তশূন্যতা বা অ্যানিমিয়া । শিশুরা সাধারনত ছয় মাসের আয়রনের রসদ নিয়েই জন্মগ্রহন করে। তবে চার থেকে ছয় মাসের মধ্যে বিভিন্ন কারণে শিশুর শরীরে আয়রনের ঘাটতি দেখা দিলে তখন তা শিশুর শরীরে রক্তশূন্যতার সৃষ্টি করতে পারে। শিশু ঠিকমত বুকের দুধ ও অন্যান্য খাবার না খেলে এই সমস্যা মারাত্বক আকার ধারন করতে পারে। নির্ধারিত সময়ের আগে জন্ম নেওয়া শিশুদের ক্ষেত্রে এই সমস্যা বেশি দেখা যায়। চলুন আজ এই ব্যপারে কিছু বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।
অ্যানিমিয়া’র লক্ষণগুলো-
• শিশুর চেহারা বিবর্ণ দেখানো,
• হাত ও হায়ের নখ একেবারে সাদা হয়ে যাওয়া,
• শিশুকে সবসময় দুর্বল দেখানো ইত্যাদি।
কি কি করণীয়ঃ
• অ্যানিমিয়া না থাকলে শিশুর নয় থেকে বার মাস বয়সে হিমোগ্লোবিন লেভেল পরীক্ষা করে নিন।
• রক্তশূন্যতা বা অ্যানিমিয়া ধরা পরলে শিশুকে বেশি করে আয়রন সমৃদ্ধ খাবার যেমন মাংস, বিভিন্ন শস্যদানা, শিমের বিচি ইত্যাদি খেতে দিন।
• আয়রন সমৃদ্ধ খাবার-দাবারের সাথে শিশুকে সঙ্গে দিন ভিটামিন সি সমৃদ্ধ ফলমূল বা খাবার যা আয়রন সমৃদ্ধ খাবার থেকে আয়রন শিশুর শরীরে আহরন করতে সাহায্য করবে।
• ছয় মাসের কমবয়সী শিশুদের ফলের রস চিকিৎসকের অনুমতি ছাড়া খাওয়াবেন না। এবং খাওয়ালেও এর পরিমাণ আধা কাপ এর বেশি হওয়া উচিৎ নয়।
• আয়রন সাপ্লিমেন্টও শিশুর শরীরে পর্যাপ্ত আয়রনের যোগান দিতে সাহায্য করে পারে। তবে খাওয়ানোর আগে চিকিৎসকের সাথে এ ব্যাপারে পরামর্শ নিন কারণ অনেক শিশুর এই আয়রন সাপ্লিমেন্ট এর কারণে পেটের সমস্যা দেখা দিতে পারে।