Pages Menu
TwitterRssFacebook
Categories Menu

Posted by on Jun 24, 2014 in গর্ভবতী মা, জেনে রাখা ভাল |

গর্ভকালীন সময়ের পাঁচটি বিপদজনক অবস্থা

গর্ভকালীন সময়ের পাঁচটি বিপদজনক অবস্থা

অনেক রকমের সতর্কতা থাকার পরেও কিছু কিছু অবস্থা থাকে যার ব্যাপারে আমাদের কিছুই করার থাকে না। মায়ের গর্ভে থাকা অবস্থায় বিভিন্ন জানা-অজানা কারণেই এমন কিছু ঘটনা ঘটতে পারে যা মা ও শিশুর জন্য সমান বিপদজনক এমনকি মৃত্যু পর্যন্ত ডেকে আনতে পারে। কি করে হতে পারে এমন বিপদজনক অবস্থাগুলো? চলুন কিছুটা ধারণা নেওয়া যাকঃ

১। গর্ভপাতঃ গর্ভাবস্থায় প্রথম ২০ সপ্তাহের মাঝে গর্ভপাত হতে পারে যা আশি ভাগ ঘটে থাকে ১২ সপ্তাহের মাঝে। ক্রোমোসমের অস্বাভাবিকতা শিশুর স্বাভাবিক বৃদ্ধিকে প্রভাবিত করে গর্ভপাত ঘটায়। রক্তপাত হওয়া এই গর্ভপাতের প্রধান লক্ষণ। তাই এমন কিছু দেখলেই সাথে সাথে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হতে হবে এবং সবকিছুর ব্যাপারে নিশ্চিত হতে রক্ত পরীক্ষা করাতে হবে।

২। সময়ের আগেই প্রসব ব্যথা ও সন্তান জন্মদানঃ শিশুর ৩৭ তম সপ্তাহের আগেই মায়ের প্রসব ব্যথা উঠলে আর শিশু জন্ম নিলে এটিকে একটি বিপদজনক অবস্থা বলেই বিবেচনা করা হয়। এটি ইংরেজিতে ‘Preterm Birth’ নামে পরিচিত। এটি মা ও শিশুর স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর ও অনেক সময় শিশুর জীবনও সংশয়ে থাকে।

৩। প্রি-এক্লামশিয়াঃ এটি গর্ভাবস্থার একটি ভয়াবহ অবস্থা যা গর্ভবতী মায়ের উচ্চ-রক্তচাপ এবং লিভার ও কিডনির সমস্যার কারনে হয়ে থাকে। এটি যদি ঠিকমতো নিয়ন্ত্রণ করা না যায় তবে তা মা ও শিশুর জীবনের জন্য হুমকি হয়ে দাঁড়ায় এবং অধিকাংশ ক্ষেত্রেই নির্ধারিত সময়ের পূর্বেই সন্তান ডেলিভারির প্রয়োজন হয়।

৪। ডায়বেটিসঃ গর্ভকালীন সময়ে ডায়বেটিস যদি সঠিকভাবে নিয়ন্ত্রণে না থাকে এবং রক্তে চিনির পরিমাণ বেশি হয়ে যায় তবে এই ডায়বেটিস সুস্থ ও স্বাভাবিক শিশু জন্মদানের ক্ষেত্রে বাঁধা হয়ে দাঁড়ায়। এজন্য নিয়মিত মায়ের ডায়বেটিসের মাত্রা চেক-আপ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। তা না হলে এই অতিরিক্ত মাত্রা শিশুর জন্মগত ডায়বেটিস এর কারণ হয়ে দাঁড়াবে।

৫। শিশুর উল্টো অবস্থানঃ মায়ের গর্ভে শিশুর অবস্থান উল্টো থাকলে তা শিশুর জন্য বিপদজনক। শিশুর অবস্থান সম্পর্কে আগে থেকে নিশ্চিত হওয়া অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি কাজ যাতে চিকিৎসক সেই অনুযায়ী সন্তান জন্মের ব্যবস্থা নিতে পারে।